রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২৫ পূর্বাহ্ন
Update News
সুখবর WhatsApp ইউজারদের জন্য আনন্দের সংবাদ… নতুন করে iQOO Z5x মিড রেঞ্জে আসছে, Dimensity 900 প্রসেসরের সাথে থাকবে 44W ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ অনেক কিছুই সাবধান হোন সকলেই আগস্টে ২০ লক্ষেরও বেশি অ্যাকাউন্ট ব্যান করল WhatsApp বিএনপির সিরিজ বৈঠক ষড়যন্ত্রেরই একটি অংশ’ বললেন ওবায়দুল কাদের দেশের বেশিরভাগ এলাকায় কার্যকর হয়নি ইন্টারনেটের ‘এক দেশ এক রেট’ বি.এম.ডব্লু CE 04 : ১৩০ কিমি ড্রাইভিং রেঞ্জ সহ আত্মপ্রকাশ করল এই বৈদ্যুতিক স্কুটার জয়পুরহাটের বিটিভির জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক মিন্টু সড়ক দুর্ঘটনায় আহত বিটিভি’র জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধি মিন্টু রোড এক্সিডেন্টে আহত জয়পুরহাটের কালাই এ শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম এর অনুমোদন জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে ৫ হাজার মেট্রিক টন এর অত্যাধুনিক সাইলো নির্মান
শিরোনামঃ
সুখবর WhatsApp ইউজারদের জন্য আনন্দের সংবাদ… নতুন করে iQOO Z5x মিড রেঞ্জে আসছে, Dimensity 900 প্রসেসরের সাথে থাকবে 44W ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট সহ অনেক কিছুই সাবধান হোন সকলেই আগস্টে ২০ লক্ষেরও বেশি অ্যাকাউন্ট ব্যান করল WhatsApp বিএনপির সিরিজ বৈঠক ষড়যন্ত্রেরই একটি অংশ’ বললেন ওবায়দুল কাদের দেশের বেশিরভাগ এলাকায় কার্যকর হয়নি ইন্টারনেটের ‘এক দেশ এক রেট’ বি.এম.ডব্লু CE 04 : ১৩০ কিমি ড্রাইভিং রেঞ্জ সহ আত্মপ্রকাশ করল এই বৈদ্যুতিক স্কুটার জয়পুরহাটের বিটিভির জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক মিন্টু সড়ক দুর্ঘটনায় আহত বিটিভি’র জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধি মিন্টু রোড এক্সিডেন্টে আহত জয়পুরহাটের কালাই এ শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম এর অনুমোদন জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে ৫ হাজার মেট্রিক টন এর অত্যাধুনিক সাইলো নির্মান

লামনিরহাটে সেই নির্যাতিত কিশোরের অসুস্থ মাকে দেখতে গেলেন পুলিশ সুপার ও নগদসহ খাদ্য সামগ্রী সহায়তা।

রিপোর্টারের নাম / ১৪৫ বার
আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১১ জুন, ২০২০

 কাওছার মাহামুদ লালমনিরহাটঃ লালমনিরহাটে সেই নির্যাতিত হোটেল বয় মমিনুল লক ডাউনের হোটেল বন্ধ থাকায় কর্মহীন হয়ে পড়ে। এদিকে ঘরে অসুস্থ মা তাই উপায় না পেয়ে ২লিটার সয়াবিন তেলের জারকিন চুরির দায়ে চালানো হয় অমানুষিক নির্যাতন। এমুহূর্তে ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। সেই নির্যাতিত মমিনুলের অসুস্থ মাকে দেখতে গেলেন পুলিশ সুপার। লালমনিরহাট পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা আজ বৃহস্পতিবার ১১ জুন সকাল ১০টায় লালমনিরহাট সদর উপজেলার চাঁদনীবাজার এলাকার সরকারি আবাসনে নির্মম নির্যাতনের শিকার কিশোর মমিনুল ইসলাম ও তার মা গোলাপী বেগমকে দেখতে যান। পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানাকে কাছে পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন মমিনুল ইসলাম। এ সময় পুলিশ সুপার আবিদা মমিনুলের কথা মনোযোগ দিয়ে শোনেন এবং শরীরে নির্যাতনের চিহ্নগুলো দেখান। পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা মমিনুল ইসলামকে বলেন, তুমি যাতে ন্যায় বিচার পাও। আমরা সেই কাজটা করছি। তোমার জন্য যতটুকু পারি আমরা করবো। ওসি সাহেব আছে। এসব আজেবাজে কাজ করা যাবে না। তোমার বয়স কম, ছোট মানুষ। আর কখনোই এ জাতীয় কাজ করবে না। তুমি কাজ করে খাবে। দুনিয়াতে যার হাত আছে তো সব আছে। হাত নেই তো কিছু নেই। তোমার হাত-পা আছে। তুমি তো সুস্থ্য মানুষ। আর উল্টাপাল্টা কাজের সাথে জড়িত হবে না। আমরা কিন্তু সব সময় তোমার দিকে নজর রাখব। উল্টাপাল্টা কাজ করলে কিন্তু শেষ একদম, ঠিক আছে। আজেবাজে যা যা স্বভাব ছিল, আজ থেকে সেগুলো সব বাদ। আমি তোমাকে ভর্তি করে দেবো, লেখাপড়ারও সুযোগ করে দেবো। এছাড়াও পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা মমিনুল ইসলামের পালিত মা গোলাপী বেগমের নিকট বিস্তারিত জানতে চান। অসুস্থ্য বৃদ্ধা গোলাপী বেগম ছেলের নির্যাতনের কথা জেনে কান্নায় ভেঙে পড়েন। পুলিশ সুপার তাকে শান্তা দিয়ে গোলাপী বেগমকে বলেন, আপনি এমন একজন মা, সত্যিই সৌভাগ্যবান। আপনি জন্ম না দিয়েও যে মমিনুল ইসলামকে লালন-পালন করেছেন। এমন কাজ কয়জন করে? আপনার আর কোনো অসুবিধা হবে না। আমরা সাধ্য মতো আপনার চিকিৎসা দেবো, ঔষধ দেবো। আপনি সুস্থ্য হয়ে যাবেন। ছেলেকে দেখে রাখবেন। আমরাও আপনাদের সাথে আছি। জানতে চাইলে পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা সাংবাদিকদের বলেন, কিন্তু অপরাধ কেন করলো সে? অপরাধের জায়গায় সে যাতে না যায়। তাকে যাতে মানবিকভাবে আমরা দেখতে পারি, সেটাই আমাদের উদ্দেশ্য। তারপরও সে যদি অন্যায় করেও ফেলে। সেক্ষেত্রে দেশে আইন আছে। আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা হবে। কিন্তু কেউ নিজের হাতে আইন তুলে এভাবে নির্মমভাবে নির্যাতন করবে? সভ্য সমাজে এটা হতে পারে না। সে কারণেই আমাদের পক্ষে যতখানি করণীয় সেটাই আমরা করছি। এবং বাচ্চাটি যাতে সুস্থ্য পথে স্বাভাবিক জীবনে থাকতে পারে। পিতা-মাতা নেই। এতিম একটা ছেলে। গোলাপী বেগম একজন ভদ্র মহিলা। তিনি কষ্ট করে মমিনুলকে বড় করেছে। লালন-পালন করেছে। এর চেয়ে সুন্দর জিনিস তো হতে পারে না। সে কারণেই আমরা চাচ্ছি যে, দেশের অন্য দশজনের মতো মমিনুল ইসলামও সুন্দর স্বাভাবিক জীবনযাপন করুক। আমাদের পক্ষে যতটুকু সম্ভব, সীমিত সামর্থ নিয়ে সেটাই আমরা করতে চেয়েছি। আজকে আমার আসার উদ্দেশ্য হচ্ছে- তার মাকে মানসিকভাবে শক্তি দেওয়া এবং অন্যরা যাতে তাদেরকে টিজ না করে, মানসিকভাবে পীড়ন না দেয়। এই মেসেজটি দেওয়া। সে ছোট বাচ্চা। সে একটা ভুল করেছে। যেন সে সুন্দর স্বাভাবিক জীবনে আসতে পারে, এজন্য আমার এখানে আসা। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ-সার্কেল) এস এম শফিকুল ইসলাম শফিক, লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহফুজ আলমসহ অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য যে, পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা মমিনুল ইসলামের মায়ের হাতে নগদ অর্থ, খাবার ও মৌসুমী ফলমূল তুলে দেন। লালমনিরহাট সরকারি কলেজ থেকেও ওই পরিবারটিকে চাল, ডাল, তেল সহ বিভিন্ন ধরনের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন। আদালত সূত্রে জানা গেছে, লালমনিরহাট জেলা ট্রাক ও ট্যাক লরি মালিক সমিতির সভাপতি ও সীমান্ত শপিং কমপ্লেক্সের মালিক আশরাফ আলী লালসহ অপর তিন আসামী লালমনিরহাট কারাগারে রয়েছে। মামলার এজাহার নামীয় অপর দুই আসামীসহ অজ্ঞাত আসামীদেরও আইনের আনা হবে। এদিকে আজ বৃহস্পতিবার ১১ জুন সকাল ১১টায় লালমনিরহাট জেলা শহরের প্রাণকেন্দ্র মিশন মোড় চত্বরে লালমনিরহাট সচেতন নাগরিক কমিটিসহ ৬টি সংগঠন নির্মম নির্যাতনের শিকার মমিনুলের মামলার প্রধান আসামী লালের জামিন যেন না হয় সে জন্য মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। সনাক সভাপতি অধ্যক্ষ স্বপ্না জামানের নেতৃত্বে ৬টি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করে বক্তব্য রাখেন। স্বপ্না জামানের নেতৃত্বে এর মধ্যে বক্তব্য রাখেন লালমনিরহাট কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম, জেলা যুব ইউনিয়নের আহবায়ক নিরঞ্জন কুমার সিংহ, জেলা ছাত্র ইউনিয়ন সংসদের আহবায়ক তপন কুমার রায়, যুগ্ম আহবায়ক বদিউজ্জামান সোহাগ, টিআইবি লালমনিরহাট ইয়েস গ্রুপের টিম লিডার ইফতেখারুল ইসলাম, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সহসভাপতি ডাঃ আশিক ইকবাল, সদস্য রিয়াজুল ইসলাম প্রমুখ।
Chat Conversation End


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিস্তারিত
Theme Created By ThemesDealer.Com